FANDOM


দিনটা তেমন ভালো শুরু হয়নি। ভাল লাগছিলনা।তাই তাড়াতাড়ি স্কুলে না খেয়ে চলে গেলাম।সেখানে সুখে ক্লাস করছিলাম। বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ক্লাসে অতি উত্তম চরিত্রের অধিকারী ছাত্র হিসেবে নির্বাচিত হলাম।মনে খুব আনন্দ ছিল।ক্লাসের পড়ানো যেই শুরু।তখন দেখি ক্লাসের মেয়েরা আর ম্যাডাম ভ্যাগটিলিটারের দিকে তাকাল। তারা দেখল কাচের ভাঙ্গা ভ্যাংটিলিটারটি কাপছে।সবাই দৌড়ে বের হয়ে যাচ্ছে। আমি জিঙ্গেস করলাম, কি হয়েছে। তখন আমার সহপাঠী শাহরিয়া বলল,ভুমিকম্প হচ্ছে।আমি আমার ব্যাগ কোলে নিয়ে বের হলাম। তাকিয়ে দেখি আমরা আর ক্লাস টেনের ছেলেরা বের হয়েছে।তাছাড়া কেউ বের হয়নি।বাকি ক্লাসরা তাকিয়ে দেখছে।এরপর ভুমিকম্প থেমে গেল ক্লাসে ঢুকে পড়তে লাগলাম। ঘন্টা পড়ল। শওকত স্যার বলল, তোমরা কি ভূমিকম্প বুঝতে পারছ?আমরা বললাম,হ্যাঁ সেই কারণে ক্লাস থেকে সেই সময় বের হয়েছিলাম।শওকত স্যার বলল, আমি তো ক্লাস ৮ এর ক্লাস থেকে দৌড় দিয়েছি।স্কুশ শেষ ছুটির ঘটনা।বাড়ি গিয়ে দেখি খবর।নেপালে ভূমিকম্প হয়েছে ৭.৯ মাত্রায়। ঢাকায় ৪ থেকে ৫ মাত্রায়। ঢাকার কিছু বাড়ি হেলে পড়েছে। এছাড়া ঢাকা মেডিকেল কলেজের এক রোগী তরুণী লাফ মারে আত্মহত্যা করেছে।তার মূল কারণ ভূমিকম্পের হাত থেকে বাঁচতে চেয়েছিল।

সেই তরুণী বাচতে চেয়ে ছিল। কিন্তু ভয়ের কারণে মেডিকেল থেকে লাফ মেরেছিল।তারপর দুপুরের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়লাম।৬টা ১০এ উঠে বই পড়তে বসলাম।৮টার সময় পড়া শেষ করলাম।পড়া শেষে ভাইয়ার সঙ্গে টেম্পেল রান ওজেড নিয়ে পাল্লা দিচ্ছিলাম।কে বেশি কয়েক অর্জন করতে পারে। তারপর ভাত খেয়ে ভাইয়ার কাছে গ্রামার পড়তে বসলাম।গ্রামার পড়ে ঘুমাতে গেলাম।